728x90 AdSpace

  • Latest News

    বুধবার, ৭ মার্চ, ২০১৮

    মেট্রো রেল: তথ্য, ইতিহাস ও কিছু কথা।


    রেল পরিবহণ ব্যবস্থা অন্যান্য ব্যাবস্থার তুলনায় বিপুল সংখ্যক যাত্রী বহন করে এবং দীর্ঘ দূরত্বের জন্য বড় ও ভারী লোড বহন করতে পারে বিধায় এটি জনপ্রিয় তাই শুরু থেকেই রেলওয়ে সিস্টেম আকৃতি, গতি, চলার প্রকৃতি, সময় বাঁচানোর ক্ষেত্রে অসাধারণ পরিবর্তন সাধন করেছেএই পরিবর্তনের মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এক উত্থান হল মেট্রো রেল।

    মেট্রো শব্দটি আসলে
    'প্যারিস মেট্রোপলিটান' এর একটি সংক্ষিপ্ত নাম যা দ্রুতই মেট্রোতে রূপান্তরিত হয়, যা পরবর্তীতে সমস্ত পাতাল নেটওয়ার্ককে সংজ্ঞায়িত করার জন্য ব্যবহৃত হয়। এটাকে দ্রুত ট্রানজিট সিস্টেম বলা হয়। এপ্রিল ২০১৪ অনুযায়ী, ৫৫ টি দেশে ১৬৮টি মেট্রো সিস্টেম তালিকাভুক্ত আছেআসুন আমরা পৃথিবীতে মেট্রো সিস্টেমের উত্স, উৎপত্তি ও ইতিহাসের মধ্যে একটি তুলনামুলক আলোচনা করি। 



    ওয়ার্ল্ডের প্রথম শহুরে ভূগর্ভস্থ রেলওয়ে হল মেট্রোপলিটান রেলওয়ে যা ১৮৬৩ সালের ১০ জানুয়ারি অপারেশন শুরু করে। এটি মূলত অগভীর টানলে নির্মিত হয়েছিল যা এখন লন্ডন পাতালের অংশ। এটি প্রচলিত ট্রেন দ্বারা হয়েছিল, এবং অসংখ্য ভেন্ট থাকা সত্ত্বেও যাত্রী ও কর্মীদের জন্য অস্বাস্থ্যকর এবং অস্বস্তিকর ছিল। ১৮৩০ সালে প্রথম ভূগর্ভস্থ রেলপথের শব্দটি প্রস্তাব করা হয় এবং ১৮৫৪ সালে মেট্রোপলিটন এই ধরনের একটি লাইন নির্মাণ করে। ১৮৬৩ সালের জানুয়ারী মাসে প্যাডিংটন ও ফারিংটন এর মধ্যে চালু হয় এবং প্রশংসা লাভ করে। উদ্বোধন দিনে এটি ৩৮০০০ যাত্রী বহনের পাশাপাশি মালামাল বহন করে।

    এই ধারা অনুযায়ী ১৮৭২ সালের জুলাই মাসে ব্রিটিশ কোম্পানি "দ্য মেট্রোপলিটান রেলওয়ে অফ কনস্ট্যান্টিনোপল টু গালতা পেরা" সূচনা করে। ১৮৭৪ সালের ৫ ডিসেম্বর
    , নির্মাণ কাজ শেষ হয় এবং ১৮৭৫ সালের ১৭ জানুয়ারি পরিবহন শুরু করে


    যুক্তরাষ্ট্রে বোস্টনে
     প্রাচীনতম সাবওয়ে টানেলটি ১৮৯৭ থেকে এখনও পর্যন্ত চলছে। পরবর্তীতে ভারী রেলগাড়িগুলি চালানোর জন্য পাতাল রেল লাইন তৈরি করা হয়েছিল।

    ১৭ অক্টোবর, ১৯১৯ তারিখে মাদ্রিদ মেট্রোরেল চালু হয়, যা আজ বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘতম মেট্রো ব্যবস্থা। ১৯২৪ সালে, বার্সেলোনা মেট্রোরেল চালু হয়

    রাশিয়াতে প্রথম ভূগর্ভস্থ মেট্রোরেল ১৯৩৫ সালে মস্কোতে খোলা হয়েছিল। মস্কো মেট্রো বিশ্বের সবচেয়ে সুশৃঙ্খল সজ্জিত স্টেশন যা প্রায়ই ভূগর্ভস্থ প্রাসাদ হিসাবে তুলনা করা হয়২০১২ সালের হিসাবে, মস্কো মেট্রো ছিল ৩০৮ কি.মি. রেলপথ এবং ১৮৬ টি স্টেশন এবং এটি বিশ্বের সবচেয়ে ব্যস্ততম মেট্রো ব্যবস্থার একটি। পরে ২০ শতকের শেষের দিকে অনেক ইউরোপীয় মহাদেশ ড্রাইভারবিহীন মেট্রোরেলগুল  মাঝারি আকারের শহরগুলিতে, বিশেষ করে স্পেন, ফ্রান্স এবং ইতালিতে হাজির হয়।

    এদিকে টরন্টো সাবওয়েটি ১৯৫৪ সালে খোলা হয়েছিল। মন্ট্রিয়েল মেট্রোটি ছিল কানাডার দ্বিতীয় সাবওয়ে ব্যবস্থা এবং ১৯৬৬ সালে উদ্বোধন করা হয়েছিল। ব্রাজিলের প্রথম ভূগর্ভস্থ সিস্টেমটি ১৯৭৪ সালে দেশটির বৃহত্তম শহরে চালু হয়েছিল। চিলির মেট্রো দে সান্টিয়াগো হল মেট্রোরেল সিস্টেম যা মোট ৮৫ টি স্টেশন সহ ৫ টি লাইনের নেটওয়ার্ক এবং দক্ষিণ আমেরিকান একমাত্র রবার টয়ের মেট্রো। কলোম্বিয়াতে মেট্রো ডি মেডেলিন কোম্পানী ডাউনটাউন এলাকার উঁচু অবকাঠামোে এবং নদীর সমান্তরালে পরিচালিত এলেভাতেদ এক্সপ্রেস। কায়রোতে প্রথম আফ্রিকান মেট্রো ব্যবস্থা ১৯৪৭ সাল থেকে গতানুগতিক রেল লাইন থেকে রূপান্তর।

    ১৯২৭ সালে টকিয়োতে প্রথম মেট্রো
    রেল এবং ওসাকাতে দ্বিতীয়টি ১৯৩৩ এ চালু হয়। চীনে প্রথম মেট্রোরেল হল বেইজিং মেট্রোরেল। ১৯৭৪ সালে দক্ষিণ কোরিয়াতে বেশ কিছু শহর আধুনিক ও বিস্তৃত সাবওয়ে ব্যবস্থা গড়ে তুলেছে।

    মেট্রো ১৯৯৬ সালে তাইওয়ানে
    , ১৯৯৯ সালে ইরান, ২০০৯ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতে, সৌদি আরবে ২০১১ সালে এবং তালিকাটিও অব্যাহত রয়েছে।


    Next
    This is the most recent post.
    পুরাতন পোস্ট
    • Blogger Comments
    • Facebook Comments

    0 মন্তব্য(গুলি):

    একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

    Item Reviewed: মেট্রো রেল: তথ্য, ইতিহাস ও কিছু কথা। Rating: 5 Reviewed By: Km Monir
    Scroll to Top